Home / দৈনন্দিন জীবনে ইসলাম / সমকাম বা পায়ুগমন

সমকাম বা পায়ুগমন

শুরু করছি মহান আল্লাহর নামে, যিনি পরম করুনাময় অসীম দয়ালু।

সমকাম বা পায়ুগমন

সমকাম বা পায়ুগমন বলতে পুরুষে পুরুষে একে অপরের মলদ্বার ব্যবহারের মাধ্যমে

নিজ যৌন উত্তেজনা নিবারণ করাকেই বুঝানো হয়। সমকাম একটি মারাত্মক গুনাহর কাজ। যার ভয়াবহতা কুফরের পরই। হত্যার চাইতেও মারাত্মক। বিশ্বে সর্বপ্রথম লূত্ব (আঃ) এর সম্প্রদায় এ কাজে লিপ্ত হয় এবং আল্লাহ তা’আলা তাদেরকে এমন শাস্তি প্রদান করেন যা ইতিপূর্বে কাউকে প্রদান করেননি ।তিনি তাদেরকে সমূলে ধ্বংস করে দিয়েছেন। তাদের ঘরবাড়ি তাদের উপরই উল্টিয়ে দিয়ে ভূমিতে তলিয়ে দিয়েছেন। অতঃপর আকাশ থেকে পাথর বর্ষন করেছেন। আল্লাহ তা’আলা বলেনঃ

وَلُوطًا إِذْ قَالَ لِقَوْمِهِ أَتَأْتُونَ الْفَاحِشَةَ مَا سَبَقَكُم بِهَا مِنْ أَحَدٍ مِّنَ الْعَالَمِينَإِنَّكُمْ لَتَأْتُونَ الرِّجَالَ شَهْوَةً مِّن دُونِ النِّسَاءِ ۚ بَلْ أَنتُمْ قَوْمٌ مُّسْرِفُونَ

অর্থা আর আমি লূত (আঃ) কে নবুওয়াত দিয়ে পাঠিয়েছি। যিনি তাঁর সম্প্রদায়কে বললেন: তোমরা কি এমন মারাত্মক অশ্লীল কাজ করছো যা ইতিপূর্বে বিশ্বর আর কেউ করেনি। তোমরা স্ত্রীলোকদেরকে বাদ দিয়ে পুরুষ কর্তৃক যৌন উত্তেজনা নিবারণ করছো। প্রকৃতপক্ষে তোমরা হচ্ছো সীমালংঘনকারী সম্প্রদায়(আ’রাফ:৮০-৮১)

আল্লাহ তা’আলা উক্ত কাজকে অত্যন্ত নোংরা কাজ বলে আখ্যায়িত করেছেন। তিনি বলেনঃ

وَلُوطًا آتَيْنَاهُ حُكْمًا وَعِلْمًا وَنَجَّيْنَاهُ مِنَ الْقَرْيَةِ الَّتِي كَانَت تَّعْمَلُ الْخَبَائِثَ ۗ إِنَّهُمْ كَانُوا قَوْمَ سَوْءٍ فَاسِقِينَ

অর্থা আর আমি লূত্ব (আঃ) কে জ্ঞান ও প্রজ্ঞা দিয়েছি এবং তাঁকে উদ্ধার করেছি এমন জনপথ থেকে যারা নোংরা কাজ করত। মূলতঃ তারা ছিলো নিকৃষ্ট প্রকৃতির ফাসিক সম্প্রদায়(আম্বিয়াঃ৭৪)

আল্লাহ তা’আলা অন্য আয়াতে সমকামীদেরকে যালিম বলেই আখ্যায়িত করেছেন। তিনি বলেনঃ

قَالُوا إِنَّا مُهْلِكُو أَهْلِ هَٰذِهِ الْقَرْيَةِ ۖ إِنَّ أَهْلَهَا كَانُوا ظَالِمِينَ

অর্থা ফেরেশতারা ইব্রাহীম (আঃ) কে বললেনঃ আমরা এ জনপদবাসীদেরকে ধ্বংস করে দেবো। এর অধিবাসীরা নিশ্চই জালিম(আনকাবূতঃ ৩১)

লূত্ব (আঃ) এদেরকে বিশৃঙ্খল জাতি হিসেবে উল্লেখ করেন।

আল্লাহ তা’আলা বলেনঃ

قَالَ رَبِّ انصُرْنِي عَلَى الْقَوْمِ الْمُفْسِدِينَ

অর্থা লূত (আঃ) বললেনঃ হে আমার প্রভূ! আপনি আমাকে এ বিপর্যয় সৃষ্টিকারী সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে সাহায্য করুন(আনকাবুতঃ৩০)

ইব্রাহীম (আঃ) তাদের ক্ষমার জন্য জোর সুপারিশ করলেও তা শুনা হয়নি। বরং তাকে বলা হয়েছেঃ

يَا إِبْرَاهِيمُ أَعْرِضْ عَنْ هَٰذَا ۖ إِنَّهُ قَدْ جَاءَ أَمْرُ رَبِّكَ ۖ وَإِنَّهُمْ آتِيهِمْ عَذَابٌ غَيْرُ مَرْدُودٍ

হে ইব্রাহীম! এ ব্যাপারে আর একটি কথাও বলো না। (তাদের ধ্বংসের ব্যাপারে) তোমার প্রভুর ফরমান এসে গেছে এবং তাদের উপর এমন এক শাস্তি আসেছে যা কিছুতেই টলবার মতো নয়। (হূদঃ ৭৬)

যখন তাদের শাস্তি নিশ্চিত হয়ে গেলো এবং তা ভোরে ভোরেই আসবে বলে লূত্ব (আঃ) কে জানিয়ে দেওয়া হলো তখন তিনি তা দেরী হয়ে যাচ্ছে বলে আপত্তি জানালে তাকে বলা হলোঃ

أَلَيْسَ الصُّبْحُ بِقَرِيبٍ

অর্থাসকাল কি অতি নিকটেই নয়! কিংবা সকাল হতে কি এতই দেরী? (হূদঃ ৮১)

আল্লাহ তা’আলা লূত্ব (আঃ) এর সম্প্রদায়ের শাস্তির ব্যাপারে বলেনঃ

فَلَمَّا جَاءَ أَمْرُنَا جَعَلْنَا عَالِيَهَا سَافِلَهَا وَأَمْطَرْنَا عَلَيْهَا حِجَارَةً مِّن سِجِّيلٍ مَّنضُودٍمُّسَوَّمَةً عِندَ رَبِّكَ ۖ وَمَا هِيَ مِنَ الظَّالِمِينَ بِبَعِيدٍ

অতঃপর যখন আমার ফরমান জারি হলো তখন ভূ-খন্ডটির উপরিভাগকে নিচু করে দিলাম এবং ওর উপর ঝামা পাথর বর্ষণ করতে লাগলাম, যা ছিলো একাধারে এবং যা বিশেষভাবে চিহ্নিত ছিলো তোমার প্রভূর ভান্ডারে। আর উক্ত জনপদটি এ যালিমদের থেকে বেশি দূরে নয়(হূদঃ ৮২-৮৩)

আল্লাহ তা’আলা অন্য আয়াতে বলেনঃ

فَأَخَذَتْهُمُ الصَّيْحَةُ مُشْرِقِينَفَجَعَلْنَا عَالِيَهَا سَافِلَهَا وَأَمْطَرْنَا عَلَيْهِمْ حِجَارَةً مِّن سِجِّيلٍإِنَّ فِي ذَٰلِكَ لَآيَاتٍ لِّلْمُتَوَسِّمِينَوَإِنَّهَا لَبِسَبِيلٍ مُّقِيمٍإِنَّ فِي ذَٰلِكَ لَآيَةً لِّلْمُؤْمِنِينَ

অতঃপর তাদেরকে সূর্যোদয়ের সময়ই এক বিকট আওয়াজ পাকড়াও করলো। এরপরই আমি জনপদটিকে উল্টিয়ে উপর নিচ করে দিলাম এবং তাদের উপর ঝামা পাথর বর্ষণ কলাম। অবশ্যই এত নিদর্শন রয়েছে পর্যবেক্ষণশক্তি সম্পন্ন ব্যক্তির জন্য। আর উক্ত জনপদটি (উহার ধ্বংস স্তূপ) স্থায়ী (বহু প্রাচীন) লোক চলাচলের পথি পার্শ্বেই এখনও বিদ্যমান। অবশ্যই এতে রয়েছে মুমিনদের জন্য নিশ্চিত নিদর্শন(হিজরঃ ৭৩-৭৭)

আল্লাহ তা’আলা ও তদীয় রাসূল (ছাঃ) সমকামীদেরকে তিন তিন বার লা’নত দিয়েছেন যা অন্য কারোর ব্যাপারে দেননি। আব্দুল্লাহ বিন আব্বাস (রাঃ) থেকে বর্নিত তিনি বলেনঃ রাসূল (ছাঃ) ইরশাদ করেনঃ

لعَنَ الّلهُ مَن عَمِلَ عَمَلَ قَومِلُوطٍ، لَعَنَ اللَّهُ مَن عَمِلَ عَمَلَ قَومِلُوطٍ، لَعَنَ اللَّهُ مَن عَمَلَ قَومِ لُوطٍ

আল্লাহ তাআলা সমকামীকে লানত করেন। আল্লাহ তাআলা সমকামীকে লানত করেন। আল্লাহ তাআলা সমকামীকে লানত করেন(আহমাদঃ ২৯১৫, বায়হাক্বীঃ৭৩৩৭)

আবূ হুরাইরাহ (রাঃ) থেকে বর্নিত তিনি বলেনঃ রাসূল (ছাঃ) ইরশাদ করেনঃ

مَلعُونٌ مَن عَمِلَ عَمَلَ قَومِ لُوطٍ،مَلعُونٌ مَن عَمِلَ عَمَلَ قَومِ لُوطٍ،مَلعُونٌ مَن عَمِلَ عَمَلَ قَومِ لُوطٍ،

সমকামীরাই অভিশপ্ত। সমকামীরাই অভিশপ্ত। সমকামীরাই অভিশপ্ত (সহীহুত তারগীবি ওয়াত- তারহীব, হাদীসঃ ২৪৪২)

বর্তমান যুগে সমকামের বহুল প্রচার ও প্রসারের কথা কানে আসতেই রাসূল (ছাঃ) এর সে ভবিষ্যদ্বণীর কথা স্মরণে এসে যায় যাতে তিনি বলেনঃ

لَوأَنَّ لُوطِيًّا اغتَسَلَ بِكُلِّ قَطرَةٍمِّنَ السَّمَاءِلَقِيَ اللَّهَ غَيرَ طاَهِرٍ

আমার উম্মাতের উপর সমকামেরই বেশি আশঙ্কা করছি। (তিরমিজীঃ১৪৫৭; ইবনে মাজাহ ,২৬১১)

ফুযাইল ইবনু ইয়ায (রাঃ) বলেনঃ

কোন সমকামী ব্যক্তি আকাশের সমস্ত পানি দিয়ে গোসল করলেও সে আল্লাহ তা’আলার সাথে অপবিত্রাবস্থায় সাক্ষাৎ করবে”।(দূরী/যম্মুললিওয়াত্বঃ১৪২।

 

 

Check Also

আল্লাহ কেন সকল মানুষকে মুসলিম হতে বাধ্য করেন নি?

প্রবন্ধটি পড়া হলে, শেয়ার করতে ভুলবেন না শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি …

মন্তব্য করুন

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *