হস্থ মৈথুন

 

প্রশ্ন: আমার জানামতে হস্ত মৈথুন কবিরা গুনাহ। কিন্তু একজন বলল যে, যদি এমন হয় যে হস্ত মৈথুন না করলে এর চেয়ে বড় কোনও পাপ হবে, যেমন জিনা হবে তবে হস্ত মৈথুন জায়েজ। দয়া করে এর বিস্তারিত আমাকে জানালে উপকৃত থাকব।

 
উত্তর:
 
বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহীম
 
হানাফী, শাফেঈ, মালেকী এবং হাম্বালী মাজহাবের অধিকাংশ আলেমের মতে হস্তমৈথুন করা হারাম। 
তাদের দলীল হচ্ছে আল্লাহ তাআলার বাণীঃ
وَالَّذِينَ هُمْ لِفُرُوجِهِمْ حَافِظُونَ (5) إِلَّا عَلَى أَزْوَاجِهِمْ أَوْ مَا مَلَكَتْ أَيْمَانُهُمْ فَإِنَّهُمْ غَيْرُ مَلُومِينَ (6) فَمَنِ ابْتَغَى وَرَاءَ ذَلِكَ فَأُولَئِكَ هُمُ الْعَادُونَ (
মুমিনগণ তাদের নিজেদের লজ্জাস্থানের হেফাজত করে। নিজেদের স্ত্রীদের ও অধিকারভুক্ত বাঁদীদের ছাড়া, এদের কাছে (হেফাজত না করলে) তারা তিরস্কৃত হবে না। তবে যারা এর বাইরে আরও কিছু চাইবে তারাই হবে সীমালংঘনকারী।
সমসাময়িক যেসব আলেম হস্তমৈথুনকে হারাম বলেছেন, তাদের মধ্যে বিন বায, বিন উছাইমীন, মুহাম্মাদ বিন আমীন শানকিতী অন্যতম। 
 
তাছাড়া আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞানও হস্তমৈথুনকে ক্ষতিকর বলে উল্লেখ করেছে। এতে রয়েছে শারীরিক ও মানসিক ক্ষতি। পুরুষাঙ্গের ক্ষতি হওয়ার বিষয়টিও অভিজ্ঞতা দ্বারা প্রমাণিত।
 
যেই লোক আপনাকে হস্তমৈথুন জায়েজের কথা বলেছে, তার কথা ঠিক নয়। 
আল্লাহই ভাল জানেন 
 

উত্তর দিয়েছেনঃ আবদুল্লাহ শাহেদ আল-মাদানী / 2014-02-05
লিসান্সঃ মদীনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, এম,এম, ফাস্ট ক্লাশ

সূএঃ Preaching Authentic Islam In Bangla

 

 

 

 

Check Also

আল্লাহ কেন সকল মানুষকে মুসলিম হতে বাধ্য করেন নি?

প্রবন্ধটি পড়া হলে, শেয়ার করতে ভুলবেন না শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি …

মন্তব্য করুন

Loading Facebook Comments ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *